1 min read

শীতকালে ত্বকের যত্ন নিতে যা করতে পারেন

শীতের মৌসুমে ত্বক সুস্থ রাখা বেশ কষ্টসাধ্য একটি বিষয়। কারণ, শীতের আবহাওয়া অত্যন্ত শুষ্ক থাকে, যা ত্বকের জন্য ভালো নয়। আর এ কারণেই শীতের মৌসুমে ত্বকের একটু বাড়তি যত্ন নেয়া প্রয়োজন।

বেশিরভাগ মানুষ কঠিন আবহাওয়াতে এ ধরনের যত্ন নেয়াকে বাড়তি ঝামেলা মনে করে। তবে, সঠিক পদ্ধতি ও সঠিক পণ্য ব্যবহার করলে শীতকালে ত্বকের যত্ন নিতে বাড়তি ঝামেলা পোহাতে হবে না। চলুন, এমন কয়েকটি পণ্য ও তার ব্যবহারবিধি সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক:

শীতকালে আবহাওয়া শুষ্ক ও ঠাণ্ডা হওয়ার কারণে আর্দ্রতা খুব দ্রুত কমে যায়। এর পাশাপাশি যখন হিটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়, তখন ত্বকের আর্দ্র ভাব আরও দ্রুত বাষ্পীভূত হয়। এর ফলে ত্বক রুক্ষ হয়ে ফেটে যায় ও চুলকাতে শুরু করে। ফলে আপনি ত্বকে টানটান ভাব ও অস্বস্তি অনুভব করে থাকেন।

এজন্য শীতকালে ত্বকের যত্ন নিতে নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে.

নিয়মিত ময়েশচারাইজার ব্যবহার করা:

শীতকালে ত্বকের আর্দ্রতা ঠিক রাখতে নিয়মিত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য এমন পণ্য বেছে নিন, যা আপনার ত্বকে আর্দ্রতাকে সুরক্ষিত রাখবে। এখানে কিছু টিপস দেয়া হলো:

তেলসমৃদ্ধ ক্রিম: শীতকালে ত্বকের যত্নে তেলসমৃদ্ধ ক্রিমযুক্ত ময়েশ্চারাইজার অধিক উপকারী। এ ধরনের পণ্যগুলো পাতলা লোশনের তুলনায় ভালোভাবে আর্দ্রতা রক্ষা করে।

ব্যবহারবিধি: আপনার মুখ ও সারা দেহে সাবলীলভাবে ক্রিম বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। হাত, পা (হিল সহ), কনুই এবং হাঁটুর মতো শুষ্ক স্থানগুলিতে বিশেষ মনোযোগ দিন।

কয়েকটি প্রলেপ তৈরী করুন: আর্দ্রতা ভালোভাবে ধরে রাখতে কয়েকটি পণ্য পরপর ব্যবহার করে প্রলেপ তৈরী করুন। এজন্য প্রথমে হাইড্রেটিং সিরাম দিয়ে শুরু করুন, তারপরে একটি ময়েশ্চারাইজার লাগান, এবং সব শেষে বাম বা তেলের মতো কিছু দিয়ে লক করে দিন।

এক্সফোলিয়েশন: শীতকালে উজ্জ্বল ত্বকের জন্য দরকারি

শীতকালে, নিয়মিত এক্সফোলিয়েশন করা গুরুত্বপূর্ণ। শুষ্কতার কারণে ত্বকের উপরিভাগ ফেটে মরা কোষ জমে ত্বক আরো মলিন দেখায়। এ ধরনের মরা কোষ দূর করার জন্য এক্সফোলিয়েশন করা বেশ উপকারী। তবে এক্ষেত্রে প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে আলতো ভাবে ঘষে ঘষে এক্সফোলিয়েট করতে হবে।

কতবার করবেন: সপ্তাহে একবার বা দুবার এক্সফোলিয়েট করলে ভালো। অথবা ১৫ দিনে একবার এক্সফোলিয়েট করতে পারেন। এক্সফোলিয়েশন অবশ্যই ত্বক বুঝে করতে হবে। সংবেদনশীল ত্বকের জন্য বিশেষ এক্সফলিয়েটর বেছে নিতে পারেন, যা মূলত: এ ধরনের ত্বকের উপযুক্ত করে তৈরী করা হয়।

সূর্য থেকে সুরক্ষা: সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি থেকে সারা বছর জুড়ে সুরক্ষিত থাকতে হবে। শীতকালের সূর্যের রশ্মি গ্রীষ্মের মতোই ক্ষতিকারক হতে পারে।

ইউভি রশ্মি থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করতে:

SPF 30 বা তার বেশি SPF যুক্ত সানস্ক্রীন ক্রীম ব্যবহার করুন। এজন্য কমপক্ষে SPF 30+ বা, SPF 50+ এর একটি ব্রড-স্পেকট্রাম সানস্ক্রিন ক্রীম খুঁজে বের করুন।

প্রয়োগের পদ্ধতি: দিনে একাধিকবার সানস্ক্রিন লাগান। প্রতি 50 মিনিটে আপনার মুখ ধুয়ে ফেলুন এবং পুনরায় ব্যবহার করুন। আপনি যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য বাইরে কাটান, তবে ঘন ঘন এই প্রক্রিয়া অনুসরণ করুন।

পর্যাপ্ত পানি গ্রহণ করুন ও বিশ্রাম নিন: পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করুন এবং যথাযথ বিশ্রাম নিন। নরম, স্বাস্থ্যকর ত্বকের জন্য এ দুটো আবশ্যক। আপনার দৈনন্দিন জীবনযাত্রার পদ্ধতি ত্বকের সুস্থতার উপর প্রভাব ফেলতে পারে।প্রতিদিন অন্তত আট গ্লাস পানি পান করে দেহে পানির সঠিক মাত্রা বজায় রাখুন। পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে ভুলবেন না। ত্বকের পুনরুজ্জীবন এবং মেরামতের জন্য ঘুম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

অতিরিক্ত যত্ন টিপস

হিউমিডিফায়ার: বাতাসে আর্দ্রতা যোগ করতে বাড়িতে বা আপনার কর্মক্ষেত্রে একটি হিউমিডিফায়ার ব্যবহার করুন।

ডায়েট: খনিজ, ভিটামিন, ওমেগা -3 ফ্যাটি অ্যাসিড এবং প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ একটি সুষম খাদ্য আপনার ত্বককে পুষ্ট ও রক্ষা করবে।

মৃদু পরিষ্কারকরণ: আপনার মুখ ধোয়ার জন্য সর্বদা হালকা গরম পানি এবং হালকা ক্লিনজার ব্যবহার করুন। ক্ষারযুক্ত সাবান বা গরম পানি ব্যবহার করবেন না, কারণ এগুলো ত্বকের প্রাকৃতিক তেল দূর করতে পারে।

এছাড়াও পর্যাপ্ত পানি খান ও বিশ্রাম নিন। এর ফলে আপনার ত্বকের ক্ষতি পুষিয়ে যাবে ও ত্বক পুনরুজ্জীবিত হয়ে উঠবে।

শীতকালীন ত্বকের যত্ন নেওয়া কঠিন কিছু নয়। সঠিক এক্সফোলিয়েশন, সূর্য থেকে সুরক্ষা, পর্যাপ্ত পানি পান করা এবং রাতে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেওয়ার মাধ্যমে আপনি ত্বকের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে পারেন। এছাড়াও ত্বকের যত্নে ভালো মানের পন্য ব্যবহার করলে আপনি শীত জুড়ে এর সুফল পাবেন।

Leave a Reply